ঢাকা ১২:০২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ঈদুল ফিতরের দিনের ফজিলত, সুন্নত, করণীয় ও বর্জনীয় ইতালির ভেনিসে প্রথম এবং প্রাচীনতম ভেনিস বাংলা প্রেস ক্লাব ইতালির উদ্যোগে ইফতার মাহফিল ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বগুড়া শেরপুর নদী থেকে, এক বস্তা দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার। মিরপুরে তিন শতাধিক পথশিশুদের মাঝে ইফতার বিতরণ করল উইনসাম স্মাইল ফাউন্ডেশন কুমারখালী ব্লাড ডোনেশনের ঈদ উপহার পৌঁছে গেল অসহায়দের বাড়ি বাড়ি রক্তের বন্ধন ঝাউগড়া শাখার নতুন কমিটি পরিচিতি সভার উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল বগুড়া শাহজাহানপুর উপজেলার চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান দুইটি আগ্নেয়  অস্ত্রসহ গ্রেফতার। গাজীপুর কাঁচামাল আড়্ৎদার মালিক গ্রুপ এর আয়োজনে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে যাকাতের বস্ত্র বিতরণ ২০২৪ অনুষ্ঠিত নড়াইলে পুলিশের পৃথক অভিযানে ইয়াবা ও সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার ৪ আমরা সন্ত্রাসী-চাঁদাবাজদের নিয়ে রাজনীতি করিনা -হুইপ সানজিদা খানম

কুমারখালী উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে আলোচনার শীর্ষে মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম

মো: আকাশ হোসেন কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৯:৪৭:২৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৩৭ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক যখন সময় অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মো: আকাশ.হোসেন কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি
আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সরব হয়ে উঠেছে কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার রাজনৈতিক অঙ্গন। গ্রাম থেকে শহরে সর্বত্রই চলছে আলোচনা, উঠছে চায়ের কাপে ঝড়। জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষ হতে না হতেই আবার সর্বত্রই আলোচনার কেন্দ্র হিসেবে দাড়িয়েছে আগামী উপজেলা নির্বাচন। সেই সাথে চলছে রাজনৈতিক মহলে নানান হিসাব নিকাশ।
বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের ভাষ্য অনুযায়ী মে মাসেই কুষ্টিয়া জেলার কুষ্টিয়া সদর, কুমারখালী, খোকসা, মিরপুর, ভেড়ামারা ও দৌলতপুরে উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এ নিয়ে নবীন ও প্রবীণ সম্ভাব্য প্রার্থীরা শুরু করেছে নিজেদের প্রচার প্রচারণা। এ সকল সম্ভাব্য প্রার্থীদের সমর্থকেরা বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে।

(২৮ জানুয়ারি) বুধবার বিকেলে কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার আলাউদ্দিন নগর ও শিলাইদহ কুটিবাড়ি এলাকা গণসংযোগ ও পথসভা করেছেন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ক্লিন ইমেজখ্যাত তৃণমূলের নেতা মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম।

এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন হাট, বাজার ও গুরুত্বপূর্ণ স্থান পোষ্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন দিয়ে ছেয়ে গেছে। এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান হিসেবে আলোচনায় বিভিন্ন জনের নাম আসলেও আলোচনার কেন্দ্র হিসেবে সবার শীর্ষে রয়েছে ক্লিন ইমেজখ্যাত তৃণমূলের এ নেতা মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম।

ইতিমধ্যে তিনি কুমারখালী উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে গনসংযোগ করছেন। তার পরিবারের প্রতিটা সদস্যই আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম এর জন্ম ও বেড়ে উঠা কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার পান্টি গ্রামে, বাবা আলহাজ্ব মাষ্টার মোঃ মিজানুর রহমান, পড়ালেখা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে, একজন শিক্ষিত, কর্মদক্ষ্য, মানুষের বিপদের আপনজন, সৎ ও সততার উত্তম সমন্বয়, তারুণ্যদীপ্ত মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম। আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত এ নেতাকে’ই আসন্ন নির্বাচনে কুমারখালী উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় তৃণমূলের নেতাকর্মী ও সাধারণ জনগণ।

তাঁর দুলাভাই ঝিনাইদহ পৌরসভার সুযোগ্য মেয়র ও দুলাভাইয়ের বড়ভাই ঝিনাইদহ-২ (ঝিনাইদহ সদর-হরিণাকুন্ড) আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য হওয়ায় যেভাবে সরকারি ও বিদেশি প্রজেক্ট ঝিনাইদহে এনে তাক লাগানো উন্নয়ন করছেন ঝিনাইদহ জুড়ে, সেই উন্নয়ন দেখেই তিনি আকৃষ্ট হয়েছেন, তিনি মনে করেন সরকারি বা বিদেশি প্রজেক্ট যেভাবে ঝিনাইদহ এনে উন্নয়ন করছেন সেই একই লাইন লবিং মেইনটেইন করে কুমারখালীতেও বড় বড় প্রজেক্ট এনে এই জনপদকে উন্নয়নের ছোঁয়ায় বদলে দেওয়া সম্ভব, শতভাগ আত্নবিশ্বাসী নাঈমের সামনে যে সময় ও সুযোগ এসেছে তা তিনি কুমারখালীর উন্নয়নে পরিপূর্ণভাবে কাজে লাগাতে চান।

কুমারখালী উপজেলার সর্বস্তরের জনগণের দোয়া ও ভালবাসা নিয়ে তিনি প্রার্থী হয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালনকারী, সৎ সাহসী নীতি ও আদর্শবান বঙ্গবন্ধুর এক লড়াকু সৈনিক, ধার্মিক, সদা হাস্যউজ্জ্বল, বিশিষ্ট সমাজ সেবক মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম। কুমারখালী উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের প্রকৃত অর্থে উন্নত, আধুনিক, শান্তি – সিমৃদ্ধির আবাসস্থল হিসাবে গড়ে তুলতে তার রয়েছে দৃঢ় অঙ্গীকার।

তিনি বলেন, মানুষের শাসক নয়, সেবক হতে চায়। জনগণের কল্যাণে কাজ করতে চায়। ভবিষ্যতেও সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা করে কুমারখালী উপজেলাকে অব্যাহত রাখতে চায় এবং সকলের প্রতি যতটুকু সম্ভব সাহায্যে সহযোগিতা করার জন্য আমার প্রচেষ্টার কোন কমতি নেই, মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম আরো বলেন, ব্যাক্তি উদ্যেগে মানুষের কল্যাণ সবসময় কাজ করা সম্ভব। সর্বাত্মকভাবে সমাজের সেবা করতে হলে জনপ্রতিনিধি হওয়ার বিকল্প নাই।
বিশেষ করে সরকারী অনুদান তৃণমূলের সর্বস্তরের মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার মাধ্যমে সমাজের সামগ্রিক কল্যাণ সাধন করা সম্ভব হয়। তাই আসন্ন কুমারখালী উপজেলা নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে জনপ্রতিনিধি হওয়ার প্রত্যাশা নিয়ে আমি এলাকায় কাজ করছি। কুমারখালী উপজেলার সর্বস্তরের জনগণের সমর্থন ও দোয়া চায় তিনি

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

কুমারখালী উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে আলোচনার শীর্ষে মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম

আপডেট সময় : ০৯:৪৭:২৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মো: আকাশ.হোসেন কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি
আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সরব হয়ে উঠেছে কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার রাজনৈতিক অঙ্গন। গ্রাম থেকে শহরে সর্বত্রই চলছে আলোচনা, উঠছে চায়ের কাপে ঝড়। জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষ হতে না হতেই আবার সর্বত্রই আলোচনার কেন্দ্র হিসেবে দাড়িয়েছে আগামী উপজেলা নির্বাচন। সেই সাথে চলছে রাজনৈতিক মহলে নানান হিসাব নিকাশ।
বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের ভাষ্য অনুযায়ী মে মাসেই কুষ্টিয়া জেলার কুষ্টিয়া সদর, কুমারখালী, খোকসা, মিরপুর, ভেড়ামারা ও দৌলতপুরে উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এ নিয়ে নবীন ও প্রবীণ সম্ভাব্য প্রার্থীরা শুরু করেছে নিজেদের প্রচার প্রচারণা। এ সকল সম্ভাব্য প্রার্থীদের সমর্থকেরা বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে।

(২৮ জানুয়ারি) বুধবার বিকেলে কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার আলাউদ্দিন নগর ও শিলাইদহ কুটিবাড়ি এলাকা গণসংযোগ ও পথসভা করেছেন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ক্লিন ইমেজখ্যাত তৃণমূলের নেতা মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম।

এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন হাট, বাজার ও গুরুত্বপূর্ণ স্থান পোষ্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন দিয়ে ছেয়ে গেছে। এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান হিসেবে আলোচনায় বিভিন্ন জনের নাম আসলেও আলোচনার কেন্দ্র হিসেবে সবার শীর্ষে রয়েছে ক্লিন ইমেজখ্যাত তৃণমূলের এ নেতা মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম।

ইতিমধ্যে তিনি কুমারখালী উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে গনসংযোগ করছেন। তার পরিবারের প্রতিটা সদস্যই আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম এর জন্ম ও বেড়ে উঠা কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার পান্টি গ্রামে, বাবা আলহাজ্ব মাষ্টার মোঃ মিজানুর রহমান, পড়ালেখা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে, একজন শিক্ষিত, কর্মদক্ষ্য, মানুষের বিপদের আপনজন, সৎ ও সততার উত্তম সমন্বয়, তারুণ্যদীপ্ত মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম। আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত এ নেতাকে’ই আসন্ন নির্বাচনে কুমারখালী উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় তৃণমূলের নেতাকর্মী ও সাধারণ জনগণ।

তাঁর দুলাভাই ঝিনাইদহ পৌরসভার সুযোগ্য মেয়র ও দুলাভাইয়ের বড়ভাই ঝিনাইদহ-২ (ঝিনাইদহ সদর-হরিণাকুন্ড) আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য হওয়ায় যেভাবে সরকারি ও বিদেশি প্রজেক্ট ঝিনাইদহে এনে তাক লাগানো উন্নয়ন করছেন ঝিনাইদহ জুড়ে, সেই উন্নয়ন দেখেই তিনি আকৃষ্ট হয়েছেন, তিনি মনে করেন সরকারি বা বিদেশি প্রজেক্ট যেভাবে ঝিনাইদহ এনে উন্নয়ন করছেন সেই একই লাইন লবিং মেইনটেইন করে কুমারখালীতেও বড় বড় প্রজেক্ট এনে এই জনপদকে উন্নয়নের ছোঁয়ায় বদলে দেওয়া সম্ভব, শতভাগ আত্নবিশ্বাসী নাঈমের সামনে যে সময় ও সুযোগ এসেছে তা তিনি কুমারখালীর উন্নয়নে পরিপূর্ণভাবে কাজে লাগাতে চান।

কুমারখালী উপজেলার সর্বস্তরের জনগণের দোয়া ও ভালবাসা নিয়ে তিনি প্রার্থী হয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালনকারী, সৎ সাহসী নীতি ও আদর্শবান বঙ্গবন্ধুর এক লড়াকু সৈনিক, ধার্মিক, সদা হাস্যউজ্জ্বল, বিশিষ্ট সমাজ সেবক মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম। কুমারখালী উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের প্রকৃত অর্থে উন্নত, আধুনিক, শান্তি – সিমৃদ্ধির আবাসস্থল হিসাবে গড়ে তুলতে তার রয়েছে দৃঢ় অঙ্গীকার।

তিনি বলেন, মানুষের শাসক নয়, সেবক হতে চায়। জনগণের কল্যাণে কাজ করতে চায়। ভবিষ্যতেও সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা করে কুমারখালী উপজেলাকে অব্যাহত রাখতে চায় এবং সকলের প্রতি যতটুকু সম্ভব সাহায্যে সহযোগিতা করার জন্য আমার প্রচেষ্টার কোন কমতি নেই, মুস্তাফিজুর রহমান নাঈম আরো বলেন, ব্যাক্তি উদ্যেগে মানুষের কল্যাণ সবসময় কাজ করা সম্ভব। সর্বাত্মকভাবে সমাজের সেবা করতে হলে জনপ্রতিনিধি হওয়ার বিকল্প নাই।
বিশেষ করে সরকারী অনুদান তৃণমূলের সর্বস্তরের মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার মাধ্যমে সমাজের সামগ্রিক কল্যাণ সাধন করা সম্ভব হয়। তাই আসন্ন কুমারখালী উপজেলা নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে জনপ্রতিনিধি হওয়ার প্রত্যাশা নিয়ে আমি এলাকায় কাজ করছি। কুমারখালী উপজেলার সর্বস্তরের জনগণের সমর্থন ও দোয়া চায় তিনি