ঢাকা ০১:০১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
হে ফাগুন দানিয়াল হত্যা মামলার প্রধান আসামী অনিক গ্রেফতার দেশের অন্যতম চরমোনাইর ফাল্গুনের ৩ দিনব্যাপী বাৎসরিক মাহফিল শুরু বুধবার নড়াইলে গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ফেন্সিডিলসহ গ্রেফতার নারায়ণগঞ্জের অস্ত্রের কারখানার সন্ধান পেয়েছে ডিবি রাজারহাট উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে ২১শে ফেব্রুয়ারি’র প্রথম প্রহরে পুষ্পার্ঘ অর্পণ রক্তে কেনা ভাষায় হিন্দুত্ববাদী সাংস্কৃতিক আগ্রাসন রুখে দিতে হবে: ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগর উত্তর নড়াইলে সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে লাখো প্রদীপ জ্বালিয়ে ভাষা শহীদদের স্মরণ নকলায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল যুবলীগ নেতার মামলায় যুব-মহিলালীগ নেত্রী গ্রেফতার

রংপুরে র‍্যাব-১৩ এর অভিযানে ধর্ষণ মামলার মূল আসামী গ্রেফতার,

হীমেল কুমার মিত্র স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ১২:১৯:৫৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৯৭ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক যখন সময় অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

রংপুর মহানগরীর কোতয়ালী থানার পীরজাবাদ এলাকার মোঃ মুকুল হোসেন এর ছেলে মোঃ মুরাদ হোসেন (২০) এর বিরুদ্ধে ধর্ষণ এর অভিযোগে রংপুর মহানগরীর কোতয়ালি থানায় গত (৩০ জানুয়ারি )
একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়। গত (২৬ জানুয়ারি) তারিখ সকালে বাদিনী এবং তার স্বামী কর্ম্স্থলে গেলে সকাল অনুমান ১১.০০ টার সময় বাদিনীর নাবালিকা মেয়ে বাড়ির গেট খোলা রেখে নিজ কক্ষে পড়াশুনা করাকালীন সময় আসামী মোঃ মুরাদ হোসেন সুযোগ বুঝে ঘরে প্রবেশ করে। বাদিনীর মেয়ে তাকে দেখিয়া চিৎকার করিলে আসামী তার মুখ চেপে ধরিয়া জোরপূর্ব্ক ধর্ষণ করে। বাদিনীর মেয়ের চিৎকার শুনে আশেপাশের লোকজন এসে ধর্ষণরত অবস্থায় আসামীকে ধরে ফেলে। পরবর্তীতে আসামী পক্ষের কয়েকজন অজ্ঞাতনামা যুবক এসে আসামীকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। উক্ত ঘটনার প্রেক্ষিতে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের হয়।

উক্ত পলাতক আসামী মোঃ মুরাত হোসেন (২০)’কে গ্রেফতারের জন্য মামলার তদন্তকারী অফিসার র‍্যাব-১৩, রংপুর বরাবর একটি অধিযাচন পত্র দায়ের করে। অধিযাচন পত্রের ভিত্তিতে তথ্য উপাত্ত গুলো বিবেচনায় এনে র‍্যাব-১৩ তাৎক্ষণিক ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং জড়িত ব্যক্তিকে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে। পরবর্তীতে সিপিএসসি, র‍্যাব-১৩, রংপুর এবং সিপিসি-২, র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম এর একটি আভিযানিক দল তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ২১/০২/২০২৩ তারিখ চট্টগ্রাম জেলার লোহাগড়া থানাধীন আমিরাবাদ নতুন বাজার দোহাজারী এলাকায় যৌথ অভিযান পরিচালনা করে ধর্ষণ মামলার পলাতক মূল আসামী মোঃ মুরাদ হোসেন (২০), পিতা-মোঃ মুকুল হোসেন, সাং-পীরজাবাদ, থানা-কোতয়ালী,আরপিএমপি,রংপুর’কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামী ঘটনার কথা অকপটে স্বীকার করে এবং বর্ণিত মামলার এজাহারনামীয় পলাতক আসামী মর্মে জানায় । সে আরো জানায় যে, মেয়েটিকে বিভিন্ন সময়ে কু-প্রস্তাব দিলে রাজি না হওয়ায় সুযোগ বুঝে বাড়ী ফাঁকা পেয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রংপুর কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

রংপুরে র‍্যাব-১৩ এর অভিযানে ধর্ষণ মামলার মূল আসামী গ্রেফতার,

আপডেট সময় : ১২:১৯:৫৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

রংপুর মহানগরীর কোতয়ালী থানার পীরজাবাদ এলাকার মোঃ মুকুল হোসেন এর ছেলে মোঃ মুরাদ হোসেন (২০) এর বিরুদ্ধে ধর্ষণ এর অভিযোগে রংপুর মহানগরীর কোতয়ালি থানায় গত (৩০ জানুয়ারি )
একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়। গত (২৬ জানুয়ারি) তারিখ সকালে বাদিনী এবং তার স্বামী কর্ম্স্থলে গেলে সকাল অনুমান ১১.০০ টার সময় বাদিনীর নাবালিকা মেয়ে বাড়ির গেট খোলা রেখে নিজ কক্ষে পড়াশুনা করাকালীন সময় আসামী মোঃ মুরাদ হোসেন সুযোগ বুঝে ঘরে প্রবেশ করে। বাদিনীর মেয়ে তাকে দেখিয়া চিৎকার করিলে আসামী তার মুখ চেপে ধরিয়া জোরপূর্ব্ক ধর্ষণ করে। বাদিনীর মেয়ের চিৎকার শুনে আশেপাশের লোকজন এসে ধর্ষণরত অবস্থায় আসামীকে ধরে ফেলে। পরবর্তীতে আসামী পক্ষের কয়েকজন অজ্ঞাতনামা যুবক এসে আসামীকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। উক্ত ঘটনার প্রেক্ষিতে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের হয়।

উক্ত পলাতক আসামী মোঃ মুরাত হোসেন (২০)’কে গ্রেফতারের জন্য মামলার তদন্তকারী অফিসার র‍্যাব-১৩, রংপুর বরাবর একটি অধিযাচন পত্র দায়ের করে। অধিযাচন পত্রের ভিত্তিতে তথ্য উপাত্ত গুলো বিবেচনায় এনে র‍্যাব-১৩ তাৎক্ষণিক ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং জড়িত ব্যক্তিকে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে। পরবর্তীতে সিপিএসসি, র‍্যাব-১৩, রংপুর এবং সিপিসি-২, র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম এর একটি আভিযানিক দল তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ২১/০২/২০২৩ তারিখ চট্টগ্রাম জেলার লোহাগড়া থানাধীন আমিরাবাদ নতুন বাজার দোহাজারী এলাকায় যৌথ অভিযান পরিচালনা করে ধর্ষণ মামলার পলাতক মূল আসামী মোঃ মুরাদ হোসেন (২০), পিতা-মোঃ মুকুল হোসেন, সাং-পীরজাবাদ, থানা-কোতয়ালী,আরপিএমপি,রংপুর’কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামী ঘটনার কথা অকপটে স্বীকার করে এবং বর্ণিত মামলার এজাহারনামীয় পলাতক আসামী মর্মে জানায় । সে আরো জানায় যে, মেয়েটিকে বিভিন্ন সময়ে কু-প্রস্তাব দিলে রাজি না হওয়ায় সুযোগ বুঝে বাড়ী ফাঁকা পেয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রংপুর কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।