ঢাকা ০৯:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বাঘায় সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত। কুড়িগ্রামে ট্রাক চাপায় প্রাণ গেলো ইস্কুল শিক্ষার্থীর শিশু অপহরণ মামলার যাবজ্জীবন আসামি ১৩ বছর পর গ্রেফতার যুগান্তরের ২৫ বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠান লালপুরে মেধাবীদের শিক্ষাবৃত্তি ও অসহায় নারীদের সেলাই মেশিন বিতরণ মাদকমুক্ত ইন্দুরকানী গড়তে আমাদের করণীয় শীর্ষক’ আলোচনা সভা রিয়াদে Dxnএর আয়োজনে আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবস পালন ও সেমিনার অনুষ্ঠিত ওআইসি সদস্য দেশগুলোর তথ্যমন্ত্রীদের সম্মেলনে যোগ দিতে তুরস্কের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী নড়াইলে হারিয়ে যাওয়া ২০টি মোবাইল আনুষ্ঠানিকভাবে ভুক্তভোগীদের নিকট হস্তান্তর পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্ব অবহেলা পাঁচ শিক্ষককে অব্যাহতি ও দুই শিক্ষর্থীকে বহিস্কার

মহাদেবপুরে ৫০ বছর ধরে ব্যবহৃত রাস্তা বন্ধ করার অভিযোগ

মোঃ এ কে নোমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় : ১০:৪৩:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ জুন ২০২৩ ১৫৪ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক যখন সময় অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মোঃ এ কে নোমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর জেলার মহাদেবপুর উপজেলায় পঞ্চাশ বছরের পুরাতন গ্রামীণ রাস্তা বেড়া দিয়ে বন্ধ করার অভিযোগ করা হয়েছে। ফলে কমপক্ষে প্রায় ১৫টি পরিবারের ধানের গাড়ী সহ অন্যান্য মালামাল নিয়ে যেতে বিড়ম্বনায় পড়েছে।

উপজেলার সদর ইউনিয়নের বকাপুর পূর্বপাড়া গ্রামের মৃত ছয়েফ উদ্দিন সরদারের ছেলে বকাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক প্রতিবন্ধী রুহুল আমিন রতন, মৃত তাছির উদ্দিনের ছেলে বৃদ্ধ আজিজুল ইসলাম, সুজন হোসেন, সেকেন্দার আলী, হামিদুর রহমান, এজদুল ইসলাম, খোকা, জাহের উদ্দিন প্রমুখ এ অভিযোগ করেন ।

শনিবার (৩ জুন) বিকেলে সরেজমিনে বকাপুর গ্রামে গেলে শিক্ষক প্রতিবন্ধী রুহুল আমিন রতন কান্নাজড়িত কন্ঠে তার বাবার মৃত্যুর কথা স্মরণ করে রাস্তাটি আবার খুলে দেয়ার দাবি জানান। এর কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই রাস্তার জন্য প্রতিবাদ করতে গিয়ে তার পিতা স্ট্রোক করেন এবং দুই সপ্তাহ যাবৎ অসুস্থতায় ভূগে মারা যান।

এছাড়াও একই গ্রামের বাসিন্দা বৃদ্ধ আজিজুল হক রাস্তাটি খুলে দেওয়ার দাবিতে জানান, পঞ্চাশ বছর ধরে তারা এই রাস্তা ব্যবহার করে আসছে। এখন এটা বন্ধ করে দিলে ভবিষ্যতে আমাদের সন্তানেরা ও নাতি-নাতনীরা ঘরে ধান তোলার ও চলাচলের জন্য রাস্তা পাবেনা।

স্থানীয়দের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী জানা যায়, এর আগে ১৯৯২ সালে জমির মালিকেরা রাস্তায় গর্ত খুঁড়ে গাড়ী চলাচল বন্ধ করে দেন। এরপর গ্রামের লোকেরা ওই গর্ত পূরণ করে আবার রাস্তা তৈরি করে। সম্প্রতি এই রাস্তায় আবার বাঁশের বেড়া দিয়ে ঘিরে চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে । ফলে পূর্বপাড়ার বাসিন্দারা বেশ বেকায়দায় পড়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জমির মালিক জাহাঙ্গীরপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের সহকারি অধ্যাপক মাহফুজুল আহসান জুয়েল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তার ব্যক্তিগত সম্পত্তিতে তিনি বেড়া দিয়েছেন। তার পূর্বপুরুষেরা ওই জমির উপর দিয়ে রাস্তা দিলেও তিনি দিবেন কিনা সেটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার।

তবে স্থানীয়রা যেকোন মূল্যে অবিলম্বে বেড়া অপসারণ করে আবারও রাস্তাটি খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মহাদেবপুরে ৫০ বছর ধরে ব্যবহৃত রাস্তা বন্ধ করার অভিযোগ

আপডেট সময় : ১০:৪৩:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ জুন ২০২৩

মোঃ এ কে নোমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর জেলার মহাদেবপুর উপজেলায় পঞ্চাশ বছরের পুরাতন গ্রামীণ রাস্তা বেড়া দিয়ে বন্ধ করার অভিযোগ করা হয়েছে। ফলে কমপক্ষে প্রায় ১৫টি পরিবারের ধানের গাড়ী সহ অন্যান্য মালামাল নিয়ে যেতে বিড়ম্বনায় পড়েছে।

উপজেলার সদর ইউনিয়নের বকাপুর পূর্বপাড়া গ্রামের মৃত ছয়েফ উদ্দিন সরদারের ছেলে বকাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক প্রতিবন্ধী রুহুল আমিন রতন, মৃত তাছির উদ্দিনের ছেলে বৃদ্ধ আজিজুল ইসলাম, সুজন হোসেন, সেকেন্দার আলী, হামিদুর রহমান, এজদুল ইসলাম, খোকা, জাহের উদ্দিন প্রমুখ এ অভিযোগ করেন ।

শনিবার (৩ জুন) বিকেলে সরেজমিনে বকাপুর গ্রামে গেলে শিক্ষক প্রতিবন্ধী রুহুল আমিন রতন কান্নাজড়িত কন্ঠে তার বাবার মৃত্যুর কথা স্মরণ করে রাস্তাটি আবার খুলে দেয়ার দাবি জানান। এর কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই রাস্তার জন্য প্রতিবাদ করতে গিয়ে তার পিতা স্ট্রোক করেন এবং দুই সপ্তাহ যাবৎ অসুস্থতায় ভূগে মারা যান।

এছাড়াও একই গ্রামের বাসিন্দা বৃদ্ধ আজিজুল হক রাস্তাটি খুলে দেওয়ার দাবিতে জানান, পঞ্চাশ বছর ধরে তারা এই রাস্তা ব্যবহার করে আসছে। এখন এটা বন্ধ করে দিলে ভবিষ্যতে আমাদের সন্তানেরা ও নাতি-নাতনীরা ঘরে ধান তোলার ও চলাচলের জন্য রাস্তা পাবেনা।

স্থানীয়দের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী জানা যায়, এর আগে ১৯৯২ সালে জমির মালিকেরা রাস্তায় গর্ত খুঁড়ে গাড়ী চলাচল বন্ধ করে দেন। এরপর গ্রামের লোকেরা ওই গর্ত পূরণ করে আবার রাস্তা তৈরি করে। সম্প্রতি এই রাস্তায় আবার বাঁশের বেড়া দিয়ে ঘিরে চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে । ফলে পূর্বপাড়ার বাসিন্দারা বেশ বেকায়দায় পড়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জমির মালিক জাহাঙ্গীরপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের সহকারি অধ্যাপক মাহফুজুল আহসান জুয়েল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তার ব্যক্তিগত সম্পত্তিতে তিনি বেড়া দিয়েছেন। তার পূর্বপুরুষেরা ওই জমির উপর দিয়ে রাস্তা দিলেও তিনি দিবেন কিনা সেটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার।

তবে স্থানীয়রা যেকোন মূল্যে অবিলম্বে বেড়া অপসারণ করে আবারও রাস্তাটি খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছে।