ঢাকা ০৯:০১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বাঘায় সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত। কুড়িগ্রামে ট্রাক চাপায় প্রাণ গেলো ইস্কুল শিক্ষার্থীর শিশু অপহরণ মামলার যাবজ্জীবন আসামি ১৩ বছর পর গ্রেফতার যুগান্তরের ২৫ বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠান লালপুরে মেধাবীদের শিক্ষাবৃত্তি ও অসহায় নারীদের সেলাই মেশিন বিতরণ মাদকমুক্ত ইন্দুরকানী গড়তে আমাদের করণীয় শীর্ষক’ আলোচনা সভা রিয়াদে Dxnএর আয়োজনে আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবস পালন ও সেমিনার অনুষ্ঠিত ওআইসি সদস্য দেশগুলোর তথ্যমন্ত্রীদের সম্মেলনে যোগ দিতে তুরস্কের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী নড়াইলে হারিয়ে যাওয়া ২০টি মোবাইল আনুষ্ঠানিকভাবে ভুক্তভোগীদের নিকট হস্তান্তর পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্ব অবহেলা পাঁচ শিক্ষককে অব্যাহতি ও দুই শিক্ষর্থীকে বহিস্কার

পূজায় যেভাবে সাজবেন

মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টারঃ
  • আপডেট সময় : ১০:০৮:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০২৩ ৪২ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক যখন সময় অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টারঃ শারদীয় দুর্গা পূজোর উৎসব আয়োজনে চারদিকে সাজ সাজ রব। সার্বজনীন এই উৎসব ঘিরে আমাদের আগ্রহের কমতি নেই। পুজোর বিশেষ এই ছষ্ঠী থেকে দশমী পর্যন্ত আপনার সাজ পোশাকের পূর্ণতা আনতে জেনে নিন পরামর্শ।

ষষ্ঠীর দিন থেকেই মূলত উৎসব শুরু হয়। এদিন তাই খুব জমকালো পোশাক এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। সাদা কিংবা যে কোনো হালকা রঙের পোশাক বেছে নিন ষষ্ঠীর দিন সঙ্গে হালকা সাজ।

ফাউন্ডেশন আর ফেসপাউডার, হালকা লিপিস্টিক আর চোখে কাজল দিয়েই সাজ শেষ করুন।

সপ্তমীর দিন থেকে নবমী পর্যন্ত সকালে পূজোর অঞ্জলি দিতে যাওয়ার সময় সুতি শাড়ি বেছে নিন। তবে বিকেল বা সন্ধ্যার দিকে একটু ভারী সাজতে পারেন। রাতের বেলা আত্মীয়স্বজনদের বাসায় ঘুরতে যাওয়া হয়। তাই এসময় সাজটি একটু গাঢ় হতেই পারে।

দশমীর দিন সাজা চাই একেবারে মনের মতো করে। এদিন সিঁদুর খেলা হয়। তাই লাল বা গাঢ় রঙের পোশাক বেছে নেওয়াই ভালো। দশমীর দিন বেছে নিন তাঁত, জামদানি বা ঐতিহ্যবাহী গরদের শাড়িটি।

এই দিন, দিনের বেলায় ত্বকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে মুখে, গলায় ও ঘাড়ে ফাউন্ডেশন হালকা করে লাগিয়ে নিন। এর ওপরে আলতো করে পাউডার এবং সামান্য বেজ কম্প্যাক্ট বুলিয়ে নিন। চোখের পুরোটা পাতায় আইশ্যাডো লাগান। চোখের ওপরের পাতায় আইলাইনার দিয়ে লাইন টেনে নিন। দুই গালে ব্লাসন বুলিয়ে দিন। পোশাকের রং-এর সঙ্গে মিলিয়ে লিপস্টিক বা লিপস্টিকের বদলে লাগান লিপগ্লস। আগেই চুল সেট করে নিন। বড় চুলে খোপা করে ফুল দিতে পারেন। আর ছোট চুল হলে ব্লো ডাই করে খুলে রাখুন। সঙ্গে ওয়েট টিসু রাখুন। মাঝে মাঝে ওয়েট টিসু দিয়ে মুখ মুছে নিন। গরমের ক্লান্তি দূর হবে আর আপনাকে অনেক বেশি সময় দেখাবে স্নিগ্ধ ও সতেজ।

রাতের সাজের সময় কোনো বাধা নেই। তবে সাজুন সময় নিয়ে, যত্ন করে, বছরের এই দিনটির জন্য আমাদের অপেক্ষা করতে হয় পুরো একটা বছর, তাই এই সাজটাও হওয়া চাই তেমনই জমকালো।

প্রথমে মুখ পরিস্কার করে টোনিং করুন। ওয়াটার বেজড্ ফাউন্ডেশন মুখে, গলায় ও ঘাড়ে লাগিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। এর ওপরে কম্প্যাক্ট পাউডার দিন। শাড়ির সঙ্গে মিলিয়ে চোখে গাঢ় রঙ-এর শ্যাডো লাগিয়ে নিন। চোখের নিচে কাজল দিন। চোখের ওপরের পাতায় আইলাইনার দিয়ে মোটা করে লাইন টেনে নিন। দুই বার করে মাশকারা লাগান। ঠোঁট এঁকে গাঢ় রঙের লিপস্টিক লাগিয়ে নিন। শাড়ি পরলে মানানসই টিপ পরুন সঙ্গে হাতভর্তী কাচের চুড়ি। পূজা দেখার সময় অনেক হাঁটতে হয় তাই সাজের সঙ্গে মিলিয়ে আরামদায়ক স্যান্ডেল পরুন।

শাড়ি পরার সময় একপেচে করে পরুন দেখতে ভালো লাগবে। আর একটি কথা বাইরে ঘুরে মজা করে যত রাতেই বাড়ি ফিরুন আর যতই ক্লান্ত থাকুন না কেন, মেকাআপ না তুলে শুতে যাওয়া যাবে না।

প্রতিদিন বাইরে থেকে ফিরে তুলায় লোশন বা অলিভ ওয়েল দিয়ে ঘষে ঘষে মেকআপ তুলে ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার মেখে ঘুমোতে যান। এতে ঘুমের মধ্যে আপনার ত্বক পরের দিনের সাজের জন্য তৈরি করবে নিজেকে।ছবি: বিথী রায়

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পূজায় যেভাবে সাজবেন

আপডেট সময় : ১০:০৮:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০২৩

মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টারঃ শারদীয় দুর্গা পূজোর উৎসব আয়োজনে চারদিকে সাজ সাজ রব। সার্বজনীন এই উৎসব ঘিরে আমাদের আগ্রহের কমতি নেই। পুজোর বিশেষ এই ছষ্ঠী থেকে দশমী পর্যন্ত আপনার সাজ পোশাকের পূর্ণতা আনতে জেনে নিন পরামর্শ।

ষষ্ঠীর দিন থেকেই মূলত উৎসব শুরু হয়। এদিন তাই খুব জমকালো পোশাক এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। সাদা কিংবা যে কোনো হালকা রঙের পোশাক বেছে নিন ষষ্ঠীর দিন সঙ্গে হালকা সাজ।

ফাউন্ডেশন আর ফেসপাউডার, হালকা লিপিস্টিক আর চোখে কাজল দিয়েই সাজ শেষ করুন।

সপ্তমীর দিন থেকে নবমী পর্যন্ত সকালে পূজোর অঞ্জলি দিতে যাওয়ার সময় সুতি শাড়ি বেছে নিন। তবে বিকেল বা সন্ধ্যার দিকে একটু ভারী সাজতে পারেন। রাতের বেলা আত্মীয়স্বজনদের বাসায় ঘুরতে যাওয়া হয়। তাই এসময় সাজটি একটু গাঢ় হতেই পারে।

দশমীর দিন সাজা চাই একেবারে মনের মতো করে। এদিন সিঁদুর খেলা হয়। তাই লাল বা গাঢ় রঙের পোশাক বেছে নেওয়াই ভালো। দশমীর দিন বেছে নিন তাঁত, জামদানি বা ঐতিহ্যবাহী গরদের শাড়িটি।

এই দিন, দিনের বেলায় ত্বকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে মুখে, গলায় ও ঘাড়ে ফাউন্ডেশন হালকা করে লাগিয়ে নিন। এর ওপরে আলতো করে পাউডার এবং সামান্য বেজ কম্প্যাক্ট বুলিয়ে নিন। চোখের পুরোটা পাতায় আইশ্যাডো লাগান। চোখের ওপরের পাতায় আইলাইনার দিয়ে লাইন টেনে নিন। দুই গালে ব্লাসন বুলিয়ে দিন। পোশাকের রং-এর সঙ্গে মিলিয়ে লিপস্টিক বা লিপস্টিকের বদলে লাগান লিপগ্লস। আগেই চুল সেট করে নিন। বড় চুলে খোপা করে ফুল দিতে পারেন। আর ছোট চুল হলে ব্লো ডাই করে খুলে রাখুন। সঙ্গে ওয়েট টিসু রাখুন। মাঝে মাঝে ওয়েট টিসু দিয়ে মুখ মুছে নিন। গরমের ক্লান্তি দূর হবে আর আপনাকে অনেক বেশি সময় দেখাবে স্নিগ্ধ ও সতেজ।

রাতের সাজের সময় কোনো বাধা নেই। তবে সাজুন সময় নিয়ে, যত্ন করে, বছরের এই দিনটির জন্য আমাদের অপেক্ষা করতে হয় পুরো একটা বছর, তাই এই সাজটাও হওয়া চাই তেমনই জমকালো।

প্রথমে মুখ পরিস্কার করে টোনিং করুন। ওয়াটার বেজড্ ফাউন্ডেশন মুখে, গলায় ও ঘাড়ে লাগিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। এর ওপরে কম্প্যাক্ট পাউডার দিন। শাড়ির সঙ্গে মিলিয়ে চোখে গাঢ় রঙ-এর শ্যাডো লাগিয়ে নিন। চোখের নিচে কাজল দিন। চোখের ওপরের পাতায় আইলাইনার দিয়ে মোটা করে লাইন টেনে নিন। দুই বার করে মাশকারা লাগান। ঠোঁট এঁকে গাঢ় রঙের লিপস্টিক লাগিয়ে নিন। শাড়ি পরলে মানানসই টিপ পরুন সঙ্গে হাতভর্তী কাচের চুড়ি। পূজা দেখার সময় অনেক হাঁটতে হয় তাই সাজের সঙ্গে মিলিয়ে আরামদায়ক স্যান্ডেল পরুন।

শাড়ি পরার সময় একপেচে করে পরুন দেখতে ভালো লাগবে। আর একটি কথা বাইরে ঘুরে মজা করে যত রাতেই বাড়ি ফিরুন আর যতই ক্লান্ত থাকুন না কেন, মেকাআপ না তুলে শুতে যাওয়া যাবে না।

প্রতিদিন বাইরে থেকে ফিরে তুলায় লোশন বা অলিভ ওয়েল দিয়ে ঘষে ঘষে মেকআপ তুলে ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার মেখে ঘুমোতে যান। এতে ঘুমের মধ্যে আপনার ত্বক পরের দিনের সাজের জন্য তৈরি করবে নিজেকে।ছবি: বিথী রায়