ঢাকা ১১:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বাঘায় সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত। কুড়িগ্রামে ট্রাক চাপায় প্রাণ গেলো ইস্কুল শিক্ষার্থীর শিশু অপহরণ মামলার যাবজ্জীবন আসামি ১৩ বছর পর গ্রেফতার যুগান্তরের ২৫ বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠান লালপুরে মেধাবীদের শিক্ষাবৃত্তি ও অসহায় নারীদের সেলাই মেশিন বিতরণ মাদকমুক্ত ইন্দুরকানী গড়তে আমাদের করণীয় শীর্ষক’ আলোচনা সভা রিয়াদে Dxnএর আয়োজনে আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবস পালন ও সেমিনার অনুষ্ঠিত ওআইসি সদস্য দেশগুলোর তথ্যমন্ত্রীদের সম্মেলনে যোগ দিতে তুরস্কের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী নড়াইলে হারিয়ে যাওয়া ২০টি মোবাইল আনুষ্ঠানিকভাবে ভুক্তভোগীদের নিকট হস্তান্তর পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্ব অবহেলা পাঁচ শিক্ষককে অব্যাহতি ও দুই শিক্ষর্থীকে বহিস্কার

ঝালকাঠিতে বিএনপির পদযাত্রা শেষে সংঘর্ষ, আহত ১৪, আটক ১৬

আবু সায়েম আকন, ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় : ০৬:৪৯:০০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ১০৩ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক যখন সময় অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ঝালকাঠিতে সংঘর্ষে পুলিশ ও বিএনপি উভয়পক্ষের ১৪ জন আহত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।পরে পুলিশের উপরে হামলার অভিযোগে পুলিশ বিএনপি ও তাদের সহযোগী সংগঠনের ১৬ জন নেতাকর্মীকে আটক করেছে। শনিবার সকাল সারে ১১ টার দিকে শহরের আমতলা সড়কে বিএনপির পদযাত্রার কর্মসূচী শেষে এ ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষের বিষয়ে পুলিশের দাবি বিএনপির নেতা-কর্মীদের হামলায় ঝালকাঠি সদর থানার ওসি (অপারেশন) সহ ছয় পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। অন্যদিকে বিএপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের হামলায় বিএনপির ৮ নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। তবে ছাত্রলীগ ও যুবলীগ হামলার বিষয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

ঝালকাঠি সদর থানার ওসি নাসির উদ্দিন সরকার পুলিশ আহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন, ঝালকাঠি সদর থানার ওসি অপারেশন ফিরোজ কামাল, এসআই মো. শফিকুর রহমান, এসআই খোকন হাওলাদার, এসআই নজরুল ইসলাম এএসআই শিপন ও কনস্টবল মতিয়ার রহমান। এরা ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, বিএনপির কেন্দ্র ঘোষিত পদযাত্রার কর্মসূচী শেষে নেতা-কর্মীরা ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশের ওপরে ইট-পাটকেল নিক্ষেভ করে। এতে ঝালকাঠি সদর থনার ওসি (অপারেশন) ফিরোজ কামালসহ ৬ পুলিশ সদস্য আহত হয়।

তবে বিএনপির নেত-কর্মীদের দাবী তাদের কর্মসূচী শেষে দলীয় কার্যালয়ে নেতা-কর্মীরা অবস্থান করছিলেন। এসময় ছাত্রলীগ ও যুবদলের নেতা-কর্মীরা অফিসে হামলা চালায়। এতে জেলা বিএনপির আহবায়ক সৈয়দ হোসেন ,সদস্য সচিব এ্যাডভোকেট শাহাদাৎ হোসেন সহ বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের আট নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব এ্যাডভোকেট শাহাদাৎ হোসেন বলেন, ছাত্রলীগ-যুবলীগ আমাদের নেতা-কর্মীদের ওপরে হামলা করেছে। আহত নেতা-কর্মীরা গ্রেফতার আতঙ্কে চিকিৎসা নিতে পারছে না।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ঝালকাঠিতে বিএনপির পদযাত্রা শেষে সংঘর্ষ, আহত ১৪, আটক ১৬

আপডেট সময় : ০৬:৪৯:০০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

ঝালকাঠিতে সংঘর্ষে পুলিশ ও বিএনপি উভয়পক্ষের ১৪ জন আহত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।পরে পুলিশের উপরে হামলার অভিযোগে পুলিশ বিএনপি ও তাদের সহযোগী সংগঠনের ১৬ জন নেতাকর্মীকে আটক করেছে। শনিবার সকাল সারে ১১ টার দিকে শহরের আমতলা সড়কে বিএনপির পদযাত্রার কর্মসূচী শেষে এ ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষের বিষয়ে পুলিশের দাবি বিএনপির নেতা-কর্মীদের হামলায় ঝালকাঠি সদর থানার ওসি (অপারেশন) সহ ছয় পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। অন্যদিকে বিএপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের হামলায় বিএনপির ৮ নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। তবে ছাত্রলীগ ও যুবলীগ হামলার বিষয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

ঝালকাঠি সদর থানার ওসি নাসির উদ্দিন সরকার পুলিশ আহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন, ঝালকাঠি সদর থানার ওসি অপারেশন ফিরোজ কামাল, এসআই মো. শফিকুর রহমান, এসআই খোকন হাওলাদার, এসআই নজরুল ইসলাম এএসআই শিপন ও কনস্টবল মতিয়ার রহমান। এরা ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, বিএনপির কেন্দ্র ঘোষিত পদযাত্রার কর্মসূচী শেষে নেতা-কর্মীরা ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশের ওপরে ইট-পাটকেল নিক্ষেভ করে। এতে ঝালকাঠি সদর থনার ওসি (অপারেশন) ফিরোজ কামালসহ ৬ পুলিশ সদস্য আহত হয়।

তবে বিএনপির নেত-কর্মীদের দাবী তাদের কর্মসূচী শেষে দলীয় কার্যালয়ে নেতা-কর্মীরা অবস্থান করছিলেন। এসময় ছাত্রলীগ ও যুবদলের নেতা-কর্মীরা অফিসে হামলা চালায়। এতে জেলা বিএনপির আহবায়ক সৈয়দ হোসেন ,সদস্য সচিব এ্যাডভোকেট শাহাদাৎ হোসেন সহ বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের আট নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব এ্যাডভোকেট শাহাদাৎ হোসেন বলেন, ছাত্রলীগ-যুবলীগ আমাদের নেতা-কর্মীদের ওপরে হামলা করেছে। আহত নেতা-কর্মীরা গ্রেফতার আতঙ্কে চিকিৎসা নিতে পারছে না।