ঢাকা ০৯:৩২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
শিশু অপহরণ মামলার যাবজ্জীবন আসামি ১৩ বছর পর গ্রেফতার যুগান্তরের ২৫ বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠান লালপুরে মেধাবীদের শিক্ষাবৃত্তি ও অসহায় নারীদের সেলাই মেশিন বিতরণ মাদকমুক্ত ইন্দুরকানী গড়তে আমাদের করণীয় শীর্ষক’ আলোচনা সভা রিয়াদে Dxnএর আয়োজনে আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবস পালন ও সেমিনার অনুষ্ঠিত ওআইসি সদস্য দেশগুলোর তথ্যমন্ত্রীদের সম্মেলনে যোগ দিতে তুরস্কের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী নড়াইলে হারিয়ে যাওয়া ২০টি মোবাইল আনুষ্ঠানিকভাবে ভুক্তভোগীদের নিকট হস্তান্তর পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্ব অবহেলা পাঁচ শিক্ষককে অব্যাহতি ও দুই শিক্ষর্থীকে বহিস্কার ইসদাইরে অবৈধ ক্যাবল ব্যবসাায়ী বহিস্কৃত যুবলীগ নেতার ফারুক আহমেদ শিমুল ও মনিরুজ্জামান ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, অফিস সীলগালা লালপুরে বিএনপির চার নেতাকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত

জামালপুরে এক প্রিন্সিপালের বিরুদ্ধে প্রশ্নপত্র জালিয়াতির অভিযোগ

মোঃ কবির হোসেন জামালপুর।
  • আপডেট সময় : ১০:১৮:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৯৩ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক যখন সময় অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

জামালপুর টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সিপালের বিরুদ্ধে বেসিক ট্রেড ৩৬০ ঘন্টা (৬ মাস ও ৩ মাস) মেয়াদি তাও্বিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। গত ৬/১/২০২৩ ইং তারিখে বেসিক ট্রেড ৩৬০ ঘন্টা কম্পিউটার অফিস অ্যাপ্লিকেশন যার বিষয় কোড ০০০৭৬ পরীক্ষাটি নেওয়া হয়। সরজমিনে গিয়ে শোনা যায় জুলাই-ডিসেম্বর, জুলাই-সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর- ডিসেম্বর ২০২২ সেশনে পরিক্ষা নেওয়ার কথা থাকলেও প্রিন্সিপাল ডঃ প্রকৌশলি মোঃ আবুল হোসেন জানুয়ারি-জুন কারিগরি বোর্ডের পুরাতন কম্পিউটার অফিস অ্যাপ্লিকেশনের প্রশ্নপত্র দিয়ে তাহার মনগড়া প্রশিক্ষণ কারিদের পরিক্ষা নিয়েফেলেছেন। প্রশ্নপত্র ২০২২ সেসন শর্ট কোর্স ৩৬০ ঘন্টা পরিক্ষা জানুয়ারি-জুলাই এর প্রশ্নপত্র দিয়েই জুলাই-ডিসেম্বর এর পরীক্ষা নেন। যা নিয়ম বহির্ভূত অন্যায়। এই বিষয়ে প্রিন্সিপাল আবুল হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন বোর্ড থেকে যে ইমেইলে যে প্রশ্নপত্র পাঠিয়েছে আমি ওই প্রশ্নপত্র দিয়ে পরীক্ষা নিয়েছি কিন্তু বাস্তবে বোর্ডের প্রশ্নপত্রের সাথে পরীক্ষা অংশগ্রহণের প্রশ্নপত্র কোন মিল নেই। তিনি তার ভুল অস্বীকার করলেও বাস্তবে ভুলের সত্যতা প্রমাণ হয়েছে বলে জানা যাই। এছাড়াও ইতিপূর্বে প্রিন্সিপাল আবুল হোসেনের বিরুদ্ধে তার বিগত কর্মরত প্রতিষ্ঠানেও একাধিক অনেক অভিযোগ রয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক প্রশিক্ষণ পরীক্ষার্থীরা জানান, এই জালিয়াতি প্রশ্নপত্র দিয়ে পরীক্ষা দিয়ে আমরা দুশ্চিন্তাই রয়েছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

জামালপুরে এক প্রিন্সিপালের বিরুদ্ধে প্রশ্নপত্র জালিয়াতির অভিযোগ

আপডেট সময় : ১০:১৮:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

জামালপুর টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সিপালের বিরুদ্ধে বেসিক ট্রেড ৩৬০ ঘন্টা (৬ মাস ও ৩ মাস) মেয়াদি তাও্বিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। গত ৬/১/২০২৩ ইং তারিখে বেসিক ট্রেড ৩৬০ ঘন্টা কম্পিউটার অফিস অ্যাপ্লিকেশন যার বিষয় কোড ০০০৭৬ পরীক্ষাটি নেওয়া হয়। সরজমিনে গিয়ে শোনা যায় জুলাই-ডিসেম্বর, জুলাই-সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর- ডিসেম্বর ২০২২ সেশনে পরিক্ষা নেওয়ার কথা থাকলেও প্রিন্সিপাল ডঃ প্রকৌশলি মোঃ আবুল হোসেন জানুয়ারি-জুন কারিগরি বোর্ডের পুরাতন কম্পিউটার অফিস অ্যাপ্লিকেশনের প্রশ্নপত্র দিয়ে তাহার মনগড়া প্রশিক্ষণ কারিদের পরিক্ষা নিয়েফেলেছেন। প্রশ্নপত্র ২০২২ সেসন শর্ট কোর্স ৩৬০ ঘন্টা পরিক্ষা জানুয়ারি-জুলাই এর প্রশ্নপত্র দিয়েই জুলাই-ডিসেম্বর এর পরীক্ষা নেন। যা নিয়ম বহির্ভূত অন্যায়। এই বিষয়ে প্রিন্সিপাল আবুল হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন বোর্ড থেকে যে ইমেইলে যে প্রশ্নপত্র পাঠিয়েছে আমি ওই প্রশ্নপত্র দিয়ে পরীক্ষা নিয়েছি কিন্তু বাস্তবে বোর্ডের প্রশ্নপত্রের সাথে পরীক্ষা অংশগ্রহণের প্রশ্নপত্র কোন মিল নেই। তিনি তার ভুল অস্বীকার করলেও বাস্তবে ভুলের সত্যতা প্রমাণ হয়েছে বলে জানা যাই। এছাড়াও ইতিপূর্বে প্রিন্সিপাল আবুল হোসেনের বিরুদ্ধে তার বিগত কর্মরত প্রতিষ্ঠানেও একাধিক অনেক অভিযোগ রয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক প্রশিক্ষণ পরীক্ষার্থীরা জানান, এই জালিয়াতি প্রশ্নপত্র দিয়ে পরীক্ষা দিয়ে আমরা দুশ্চিন্তাই রয়েছি।