ঢাকা ০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
শিশু অপহরণ মামলার যাবজ্জীবন আসামি ১৩ বছর পর গ্রেফতার যুগান্তরের ২৫ বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠান লালপুরে মেধাবীদের শিক্ষাবৃত্তি ও অসহায় নারীদের সেলাই মেশিন বিতরণ মাদকমুক্ত ইন্দুরকানী গড়তে আমাদের করণীয় শীর্ষক’ আলোচনা সভা রিয়াদে Dxnএর আয়োজনে আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবস পালন ও সেমিনার অনুষ্ঠিত ওআইসি সদস্য দেশগুলোর তথ্যমন্ত্রীদের সম্মেলনে যোগ দিতে তুরস্কের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী নড়াইলে হারিয়ে যাওয়া ২০টি মোবাইল আনুষ্ঠানিকভাবে ভুক্তভোগীদের নিকট হস্তান্তর পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্ব অবহেলা পাঁচ শিক্ষককে অব্যাহতি ও দুই শিক্ষর্থীকে বহিস্কার ইসদাইরে অবৈধ ক্যাবল ব্যবসাায়ী বহিস্কৃত যুবলীগ নেতার ফারুক আহমেদ শিমুল ও মনিরুজ্জামান ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, অফিস সীলগালা লালপুরে বিএনপির চার নেতাকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত

ছোট ভাইয়ের আবাদি জমিতে সেচ দিতে বড় ভাইয়ের বাঁধা

মিজানুর রহমান মিলন শাজাহানপুর উপজেলা প্রতিনিধি :
  • আপডেট সময় : ০৪:৫৮:৩৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ জুন ২০২৩ ৬১ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক যখন সময় অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

প্রচন্ড খড়তাপে পুড়ছে বগুড়া শাজাহানপুর উপজেলার আমরুল ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে কৃষক আব্দুল মোমিন(৩৫) এর কচু আবাদ। সেই জমিতে সেচের জন্য পানি দিতে বাঁধা সৃস্টি করছেন আপন বড় ভাই আব্দুর রশিদ(৫০)। জমিটিতে সেচের পানি নিতে হলে বড় ভাইয়ের বাড়ি সংলঘ্ন গলি দিয়েই নিতে হবে। ২ভাই ওই গ্রামের মন্তাজ প্রামানিকের ছেলে। এ নিয়ে সোমবার(৫জুন) সকাল ৮টার দিকে উভয় ভাইয়ের মধ্যে হাতা হাতির ঘটনাও ঘটে। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় অভিযোগ হয় নাই।

সরেজমিনে বড় ভাই আব্দুর রশিদ জানান, আমার বাড়ির পাশ দিয়ে আমার ছোট ভাই মোমিন সেচের জন্য পানি নিচ্ছিল। আমি বলেছিলাম পাইপ দিয়ে পানি নেয়ার জন্য। কিন্তু সে তা না করেই পানি নিচ্ছিল। আমার স্ত্রী নিষেধ করায় তাঁকে মেরে রক্তাত্ব করেছে।

ছোট ভাই আব্দুল মোমিন জানান, প্রচন্ড তাপে আমার আবাদ পুড়ে যাচ্ছে। পানি সেচ দেয়া জরুরি হয়ে পড়েছে। তাই আমার বড় ভাই রশিদ এর বাড়ির গলি দিয়ে আমার কচু বাগানে পানি নিচ্ছিলাম। ওই গলি পায়ে হাঁটার রাস্তার জন্য আমরা সাই ছেড়ে দিয়েছিলাম। যদিও বড় ভাই এখন তাঁর নিজের বলে দাবি করছেন। আবাদ নস্ট হলে আমাদেও পেট চলবেনা।

জানতে চাইলে তাঁদের পিতা বৃদ্ধ মন্তাজ প্রামানিক জানান, যে গলি দিয়ে মোমিন জমিতে পানি নিচ্ছিল তা আমাদেও পরিবারের সবার পায়ে হাঁটার জন্য রাখা হয়েছে। আমি আমার সন্তানদেও জমি ভাগ করে দেয়ার সময় সেভাবেই দিয়েছিলাম। ওই গলির জায়গার জন্য আমি রশিদকে তাঁর বাড়ির সাথে এক শতাংশ জমি বেশি দিয়েছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ছোট ভাইয়ের আবাদি জমিতে সেচ দিতে বড় ভাইয়ের বাঁধা

আপডেট সময় : ০৪:৫৮:৩৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ জুন ২০২৩

প্রচন্ড খড়তাপে পুড়ছে বগুড়া শাজাহানপুর উপজেলার আমরুল ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে কৃষক আব্দুল মোমিন(৩৫) এর কচু আবাদ। সেই জমিতে সেচের জন্য পানি দিতে বাঁধা সৃস্টি করছেন আপন বড় ভাই আব্দুর রশিদ(৫০)। জমিটিতে সেচের পানি নিতে হলে বড় ভাইয়ের বাড়ি সংলঘ্ন গলি দিয়েই নিতে হবে। ২ভাই ওই গ্রামের মন্তাজ প্রামানিকের ছেলে। এ নিয়ে সোমবার(৫জুন) সকাল ৮টার দিকে উভয় ভাইয়ের মধ্যে হাতা হাতির ঘটনাও ঘটে। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় অভিযোগ হয় নাই।

সরেজমিনে বড় ভাই আব্দুর রশিদ জানান, আমার বাড়ির পাশ দিয়ে আমার ছোট ভাই মোমিন সেচের জন্য পানি নিচ্ছিল। আমি বলেছিলাম পাইপ দিয়ে পানি নেয়ার জন্য। কিন্তু সে তা না করেই পানি নিচ্ছিল। আমার স্ত্রী নিষেধ করায় তাঁকে মেরে রক্তাত্ব করেছে।

ছোট ভাই আব্দুল মোমিন জানান, প্রচন্ড তাপে আমার আবাদ পুড়ে যাচ্ছে। পানি সেচ দেয়া জরুরি হয়ে পড়েছে। তাই আমার বড় ভাই রশিদ এর বাড়ির গলি দিয়ে আমার কচু বাগানে পানি নিচ্ছিলাম। ওই গলি পায়ে হাঁটার রাস্তার জন্য আমরা সাই ছেড়ে দিয়েছিলাম। যদিও বড় ভাই এখন তাঁর নিজের বলে দাবি করছেন। আবাদ নস্ট হলে আমাদেও পেট চলবেনা।

জানতে চাইলে তাঁদের পিতা বৃদ্ধ মন্তাজ প্রামানিক জানান, যে গলি দিয়ে মোমিন জমিতে পানি নিচ্ছিল তা আমাদেও পরিবারের সবার পায়ে হাঁটার জন্য রাখা হয়েছে। আমি আমার সন্তানদেও জমি ভাগ করে দেয়ার সময় সেভাবেই দিয়েছিলাম। ওই গলির জায়গার জন্য আমি রশিদকে তাঁর বাড়ির সাথে এক শতাংশ জমি বেশি দিয়েছি।