ঢাকা ০১:২৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
প্রবাস জীবন হে ফাগুন দানিয়াল হত্যা মামলার প্রধান আসামী অনিক গ্রেফতার দেশের অন্যতম চরমোনাইর ফাল্গুনের ৩ দিনব্যাপী বাৎসরিক মাহফিল শুরু বুধবার নড়াইলে গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ফেন্সিডিলসহ গ্রেফতার নারায়ণগঞ্জের অস্ত্রের কারখানার সন্ধান পেয়েছে ডিবি রাজারহাট উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে ২১শে ফেব্রুয়ারি’র প্রথম প্রহরে পুষ্পার্ঘ অর্পণ রক্তে কেনা ভাষায় হিন্দুত্ববাদী সাংস্কৃতিক আগ্রাসন রুখে দিতে হবে: ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগর উত্তর নড়াইলে সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে লাখো প্রদীপ জ্বালিয়ে ভাষা শহীদদের স্মরণ নকলায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল

ছেলের জানাযায় বাবার ঈমামতি, সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন হাফেজ মেহেদী হাসান।

মোঃ তোফায়েল আহমেদ,দেবিদ্বারঃ
  • আপডেট সময় : ০৭:৪৬:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর ২০২৩ ৪১ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক যখন সময় অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মোঃ তোফায়েল আহমেদ,দেবিদ্বারঃ

ছুটিতে বাড়ি ফেরা হলো না মোঃ মেহেদী হাসান(২৪) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্রের। ঢাকা থেকে কুমিল্লা বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয়ে বাড়ি ফিরল ঐ ছাত্রের মরদেহ।

বুধবার(২৫ অক্টোবর) বিকেল ৪টায় ঢাকা থেকে কুমিল্লার দেবীদ্বারে বড় আলমপুর বাড়ি ফেরার পথে রাস্তা পারাপারের সময়, মাতুয়াইল এলাকায় দ্রুতগামী বাসের ধাক্কায় মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হলে স্থানীয় একজন সাংবাদিক তাৎক্ষণিক তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথেই মৃত্যু হয় তার।

নিহত হাসান দেবীদ্বার পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ড বড়আলমপুর গ্রামের আব্দুল ওহাব মাওলানার বড় ছেলে। পরিবারের বড় ছেলের এমন মৃত্যুর সংবাদ যেনো মেনে নিতে পারছে না হাসানের মা-বাবা। বার বার কান্নায় ভেঙে পরছেন তারা। ঐ মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের মাতম।

নিহত হাসানের পরিবার ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, হাসান দেবীদ্বার থেকে হেফজ শেষ করে ঢাকায় চাচার বাসায় থেকে সাভার এর একটি মাদ্রাসায় দাওরা শ্রেনীতে পড়ছে, কিছুদিনের মধ্যেই কোর্স কমপ্লিট হবার কথা ছিল। সে কিছুদিন পূর্বে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকায় মাদ্রাসা থেকে ছুটি নিয়ে বিশ্রাম নিতে বাড়িতে আসার সময় সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয়েছে।
তার মা, রাহিমা বেগম বলেন, রীতিমতো আমি তার খোঁজখবর নিতাম, খাবারের সময় হলেই ফোন দিয়ে খোঁজখবর নিতাম, অথচ আজকে খাবার নিয়ে বসে আছি তার কোন খোঁজ খবর নেই, বাড়ি থেকে হাসানের ফোনে কল দিলে একজন সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ওপাশ থেকে বলল আপনার ছেলে এক্সিডেন্ট করেছে, তাকে ঢাকা মেডিকেল নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

সাংবাদিক জানান ঢাকা মেডিকেল নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যুবরণ করেন হাসান,ঢাকা থেকে রাত ১০ টার দিকে ঢাকায় থাকা তার মামা ওয়াহিদুর রহমান, এবং তার খালাতো ভাই আখন্দ জাহিদ হাসানের মরদেহ নিয়ে তার গ্রামের বাড়ি আলমপুরে আসেন।
হাসান নম্র ভদ্র আনুগত্য ছেলে, সকলের প্রয়োজনে পাশে থাকার চেষ্টা ছিলো তার, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিরা জানান, যেকোনো প্রয়োজনে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতেন হাসান, এবং তাদের পারিবারিকভাবে একটি মাদ্রাসা কমপ্লেক্স এর কাজ চলছিল, যে মাদ্রাসায় প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্বরত থাকার কথা ছিল হাসানের।

আজ বৃহস্পতিবার, সকাল ৯ টার দিকে তাদের পারিবারিক ঈদগাহ মাঠে তার জানাযা অনুষ্ঠিত হয়, জানাজার ইমামতি করেন তার শ্রদ্ধেয় বাবা মাওলানা আব্দুল ওহাব, জানাজা শেষে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ছেলের জানাযায় বাবার ঈমামতি, সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন হাফেজ মেহেদী হাসান।

আপডেট সময় : ০৭:৪৬:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর ২০২৩

মোঃ তোফায়েল আহমেদ,দেবিদ্বারঃ

ছুটিতে বাড়ি ফেরা হলো না মোঃ মেহেদী হাসান(২৪) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্রের। ঢাকা থেকে কুমিল্লা বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয়ে বাড়ি ফিরল ঐ ছাত্রের মরদেহ।

বুধবার(২৫ অক্টোবর) বিকেল ৪টায় ঢাকা থেকে কুমিল্লার দেবীদ্বারে বড় আলমপুর বাড়ি ফেরার পথে রাস্তা পারাপারের সময়, মাতুয়াইল এলাকায় দ্রুতগামী বাসের ধাক্কায় মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হলে স্থানীয় একজন সাংবাদিক তাৎক্ষণিক তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথেই মৃত্যু হয় তার।

নিহত হাসান দেবীদ্বার পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ড বড়আলমপুর গ্রামের আব্দুল ওহাব মাওলানার বড় ছেলে। পরিবারের বড় ছেলের এমন মৃত্যুর সংবাদ যেনো মেনে নিতে পারছে না হাসানের মা-বাবা। বার বার কান্নায় ভেঙে পরছেন তারা। ঐ মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের মাতম।

নিহত হাসানের পরিবার ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, হাসান দেবীদ্বার থেকে হেফজ শেষ করে ঢাকায় চাচার বাসায় থেকে সাভার এর একটি মাদ্রাসায় দাওরা শ্রেনীতে পড়ছে, কিছুদিনের মধ্যেই কোর্স কমপ্লিট হবার কথা ছিল। সে কিছুদিন পূর্বে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকায় মাদ্রাসা থেকে ছুটি নিয়ে বিশ্রাম নিতে বাড়িতে আসার সময় সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয়েছে।
তার মা, রাহিমা বেগম বলেন, রীতিমতো আমি তার খোঁজখবর নিতাম, খাবারের সময় হলেই ফোন দিয়ে খোঁজখবর নিতাম, অথচ আজকে খাবার নিয়ে বসে আছি তার কোন খোঁজ খবর নেই, বাড়ি থেকে হাসানের ফোনে কল দিলে একজন সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ওপাশ থেকে বলল আপনার ছেলে এক্সিডেন্ট করেছে, তাকে ঢাকা মেডিকেল নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

সাংবাদিক জানান ঢাকা মেডিকেল নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যুবরণ করেন হাসান,ঢাকা থেকে রাত ১০ টার দিকে ঢাকায় থাকা তার মামা ওয়াহিদুর রহমান, এবং তার খালাতো ভাই আখন্দ জাহিদ হাসানের মরদেহ নিয়ে তার গ্রামের বাড়ি আলমপুরে আসেন।
হাসান নম্র ভদ্র আনুগত্য ছেলে, সকলের প্রয়োজনে পাশে থাকার চেষ্টা ছিলো তার, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিরা জানান, যেকোনো প্রয়োজনে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতেন হাসান, এবং তাদের পারিবারিকভাবে একটি মাদ্রাসা কমপ্লেক্স এর কাজ চলছিল, যে মাদ্রাসায় প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্বরত থাকার কথা ছিল হাসানের।

আজ বৃহস্পতিবার, সকাল ৯ টার দিকে তাদের পারিবারিক ঈদগাহ মাঠে তার জানাযা অনুষ্ঠিত হয়, জানাজার ইমামতি করেন তার শ্রদ্ধেয় বাবা মাওলানা আব্দুল ওহাব, জানাজা শেষে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়।